Home Entertainment ” দর্শক শ্রোতারা কিন্তু বোকা নয় ” – পিয়ালী ঘোষ দত্ত

” দর্শক শ্রোতারা কিন্তু বোকা নয় ” – পিয়ালী ঘোষ দত্ত

by admin

পুরোনো গান গাওয়া একজন নতুন শিল্পীর কতটা প্রয়োজন?

এই গানগুলো গাওয়ার মধ্য দিয়ে একটা রেওয়াজ হয়৷ আমার ১৮ বছরের সঙ্গীতজীবনের অভিজ্ঞতায় বুঝতে পেরেছি পুরোনো শিল্পী যারা, যাদের দেখে আমারা গানবাজনা শিখেছি, তাদের নকল করা নয় কিন্তু তাদের সঙ্গীতের মাধ্যমে যা কিছু শিক্ষণীয় সেগুলোকে আয়ত্ত করেই এগিয়ে যাওয়া৷

এখন ফেসবুক ইউটিউব এর মত প্ল্যাটফর্ম এ প্রচুর কভার গান হচ্ছে৷ এখনকার গান হচ্ছে আবার পুরোনো গানের কভার হচ্ছে৷ এর কারণ কী নতুন বাংলা বেসিক গান কম তৈরি হচ্ছে?

বাংলা গান সত্যিই কম তৈরি হচ্ছে৷ মৌলিক বাংলা গান আরও অনেক বেশি তৈরি হওয়া দরকার৷ দর্শক শ্রোতাবন্ধুদের কাছে অনুরোধ তারাও গান শুনুন, তাহলে আমরা যারা শিল্পী তারাও আরও নতুন কাজ করার অনুপ্রেরণা পাব৷ দেখা যায় অন্য ভাষার গানের থেকে বাংলা মৌলিক গানের ভিউয়ার্স অনেক কম৷ ভালো লেখা, ভালো সুর এর গান তৈরি করা এই বিষয় গুরুত্ব দেওয়া উচিত৷

 

একটা সময় সিডি ক্যাসেট ছিল। মানুষ অপেক্ষা করে থাকতেন পুজোর গানের জন্য। মানুষ সিডি ক্যাসেট কিনে শুনতেন৷ এখন ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে এমনিই শুনতে পারছেন। তাও সেই জায়গাটা আর নেই কেন?

এখন ট্রেন্ড চলছে সিঙ্গলস এর৷ আগের মত সাত আটটা গান একেবারে করে অ্যালবাম বের করার ট্রেন্ড এখন নেই৷ তাই সকলেই একটা করে গান করছেন৷ তাই হয়ত সংখ্যা কমছে৷ সত্যি আমাদের ছোটবেলাতেও পুজোর গান অনেক অনেক তৈরি হত এবং সেগুলো সুপারহিট হত৷ এখন অডিও ভিডিও মাধ্যমে হচ্ছে৷ ফলত বিষয় বদলে গেছে।

ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম শিল্প এর গুণমান কি কমিয়ে দিচ্ছে?

না৷ ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম শিল্পের সহায়ক। অনেক শিল্পী আছেন যারা প্ল্যাটফর্ম পান না, তারা কিন্তু সহজেই মানুষের কাছে পৌঁছতে পারছেন৷ নাম করা আর গান শেখা দুটো আলাদা বিষয়। এমন অনেক শিল্পী আছেন যারা অত্যন্ত গুণী কিন্তু মানুষ সেভাবে তাদের জানেন না, তারা হয়ত সেই প্ল্যাটফর্ম টা পাননি বলে আজকে তাদের নাম হয়নি৷ কিন্তু এখন এই প্রজন্মের অনেক নতুন ছেলে মেয়ে যারা সত্যিই গুণী তারা কিন্তু এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমেই মানুষের কাছে তাদের শিল্প তুলে ধরছে৷ এখন এই প্যান্ডেমিক অবস্থায় একদিকে মানুষ ঘরবন্দী, আগের মত সামনে থেকে শ্রোতাদের পাওয়া না গেলেও ভার্চুয়াল অনুষ্ঠান সম্ভব হয়েছে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের জন্য৷

 

ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে ভাইরাল যা হয় তার শিল্পগুণ সবসময় থাকে তাও নয়। তাহলে?

হ্যাঁ এটাও সত্যি৷ তবে দর্শক শ্রোতারা কিন্তু বোকা নয়৷ কার মধ্যে কতটা দক্ষতা তা বোঝা যায়৷ এবং সাময়িক হয়ত কিছু বিষয় জনপ্রিয় হয় তবে দক্ষতা অভিজ্ঞতা এবং চর্চা এই যে দীর্ঘদিনের সঙ্গীত সাধনা করে যারা কাজ করছেন তাদের কাজ কিন্তু চিরকালীন। তারা হারিয়ে যান না সহজে, শ্রোতাদের মনে থেকে যান। শিল্পীদের ধরে রাখেন দর্শক শ্রোতারা।

আরও পড়ুন – 

জীবনের উৎসবে কবিতাকে সঙ্গী করে আয়োজন কবিতা উৎসব “আমার কবিতা আলোর চাতক “

কোনটা বেশি চ্যালেঞ্জিং? নিজের নতুন গান করা নাকি জনপ্রিয় গান নিজে গাওয়া?

নিজের গান করা বেশি চ্যালেঞ্জিং। কারণ নিজের গান দিয়ে দর্শকদের কাছে পৌঁছনোটাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ৷

আপনার কাজ সম্পর্কে জানতে চাই

রবীন্দ্রসঙ্গীত, নজরুলগীতি করছি অনেকদিন ধরেই৷ শ্যামাসঙ্গীতও করেছি৷ আগামী দিনে মৌলিক বাংলা গান আসতে চলেছে৷ তার কাজ চলছে৷ কিছুদিন পরেই শ্রোতাদের কাছে আসবে৷

শিল্পী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য কোন তিনটে গুণ থাকা আবশ্যক?

ট্যালেন্ট, প্র‍্যাক্টিস এবং হাল না ছাড়া মনোভাব।

 

 

সাক্ষাৎকার গ্রহণ এবং লিখন – সায়নী মুখার্জী

Related Videos

Leave a Comment