Home Uncategorized দেশের প্রথম ডাকঘর

দেশের প্রথম ডাকঘর

by admin

১৭৫৭ তে পলাশির যুদ্ধে সিরাজউদৌল্লার পরাজয় হল। তার পর শুরু হল ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির শাসন। বাংলার একাধিক জায়গায় ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি তাদের ব্যবসা শুরু করেছিল৷ পাশাপাশি ব্যবসা করছিল ডাচ-ওলন্দাজরাও।

ভারতের প্রথম ডাকঘর ছিল এ রাজ্যেই, কোথায় জানেন?

 

 

 

কলকাতা ছাড়া জলপথে খেজুরি, ডায়মন্ডহারবারের সঙ্গে চলত বাণিজ্য

কলকাতা ছাড়া জলপথে খেজুরি, ডায়মন্ডহারবারের সঙ্গে চলত বাণিজ্য।

  • খেজুরি, ডায়মন্ডহারবার, থেকে লবণ, মশলা, ইত্যাদি রন্ধন সামগ্রী তখন জলপথে রফতানি করা হত।
  • পোস্ট অফিস গড়ে ওঠে পূর্ব মেদিনীপুরের খেজুরিতে।
  • ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির আমলে স্থাপিত প্রাচীন এই ‘কেডগিরি পোস্ট অফিস’কে দেশের প্রথম ডাকঘর বলা হয়৷

Nation's First Post Office In Khejuri Are In Ruins

 

 

 

খেজুরি বন্দর থেকে কলকাতা পর্যন্ত  চিঠিপত্র আসত বিলেত থেকে

খেজুরি বন্দর থেকে কলকাতা পর্যন্ত  চিঠিপত্র আসত বিলেত থেকে কলকাতায়।

 

কাজ নেই, তবে এবার ভোটটা অন্তত দিতে পারবো,আশায় বুক বাঁধছে খেজুরী, khejuri to vote in sixth phase of loksabha elections 2019 | south-bengal - News18 Bangla, Today's Latest Bengali News

 

  • কলকাতা থেকে ডায়মন্ড হারবার, ডায়মন্ড হারবার থেকে কুঁকড়াহাটি, এবং কুঁকড়াহাটি থেকে খেজুরি পযর্ন্ত দেশে প্রথম টেলিগ্রাফ লাইন চালু হয় ১৮৫১-৫২ খ্রীষ্টাব্দে৷
  • ইউরোপ থেকে যেসব চিঠিপত্র আসত তা এই  ‘কেডগিরি ডাকঘরে’র মাধ্যমে আদান প্রদান হত৷

 

 

বাংলার মহিলা চিত্রশিল্পীদের কথা

ইউরোপ থেকে  বড় বড় জাহাজগুলি সরাসরি  কলকাতা যেত না

ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির ক্যাপ্টেন জেমস ছিলেন নাবিক, তিনি ১৮৭২ এ সবর্প্রথম খেজুরিতে ঘাঁটি গাড়েন।

  • ইউরোপ থেকে  বড় বড় জাহাজগুলি সরাসরি  কলকাতা যেত না, আগে খেজুরিতেই আসত৷  সেখান থেকে  ছোট ছোট জাহাজ বা বজরায় করে মালপত্র নিয়ে যেত কলকাতায়। এই  সূত্রেই খেজুরিতে গড়ে উঠেছিল প্রথম ডাকঘর। ১৮৬৪ সালের ভয়াবহ বন্যায় খেজুরি বন্দর ডুবে যায়৷  ১৮৫১ তে কলকাতা মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডব্লু বি ও সাউগণেশ খেজুরি ডাকঘর থেকে টেলিগ্রাফ ব্যবস্থা চালু করেন ১৮৫৫ তে।

 

ভারতের প্রথম ডাকঘর ও টেলিগ্রাফ ব্যবস্থার জন্মস্থান বঙ্গের এই স্থান - জিয়ো বাংলা

 

ডাক বিভাগের পক্ষ থেকে এই জায়গায় একটি মনুমেন্ট গড়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়৷  ইন্দিরা গান্ধি প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন বিধায়ক সুনির্মল পাইক সংস্কারের উদ্যোগ নিলেন৷ কিন্তু সরকারি নিয়ম পেরিয়ে এখনো সেই মনুমেন্ট হয়নি৷ কিন্তু এশিয়াটিক সোসাইটি ও ন্যাশনাল লাইব্রেরির বইপত্র ঘাঁটলে দেখা যায়  কেডগিরি পোস্ট অফিস এর কথা রয়েছে৷ বর্তমানে যা আড়াইশো বছরের বেশি সময় ধরে ভগ্নপ্রায় ইটের স্তুপের মাঝে অবহেলায়  ইতিহাসের সাক্ষ্য বহন করছে ।

Related Videos

Leave a Comment