Home যেসব কথা কানে আসে কোথা থেকে এল বড়দিন আর সান্তা ক্লস

কোথা থেকে এল বড়দিন আর সান্তা ক্লস

by admin

রাত পোহালেই বড়দিনের উৎসবে মেতে উঠবে সকলে। খ্রিস্টমাস মানেই কেকের উৎসব আর অনেক উপহার। কিন্তু এই বড়দিন কি ? কোথা থেকেই এল এই বড়দিন। আমরা সবাই জানি যীশুক্রিস্টের জন্মদিনকে বড়দিন হিসাবে মানা হয়। কিন্তু ইতিহাস কি বলছে? সত্যিই কি এই দিনেই যীশুর জন্ম? বাইবেলের নিউ টেস্টামেন্টে খ্রিস্টজন্মের নির্দিষ্ট কোনো তারিখ নেই ফলে প্রথম থেকেই এনিয়ে নানা গবেষণা , তর্ক বিতর্ক হয়েছে। ডেল আরভিন ও স্কট সানকিস্ট তাঁদের হিস্ট্রি অব দ্য ওয়ার্ল্ড ক্রিশ্চিয়ান মুভমেন্ট গ্রন্থে লিখেছেন ‘৩০০ খ্রিস্টাব্দের আগে পর্যন্ত যীশুখ্রিস্টের জন্মদিন নিয়ে কোনো ঐক্যমত ছিল না। অনেকে বসন্তের একটি দিন হিসাবে এইদিন টি পালন করতেন আবার অনেকে ‘অদম্য সূর্যের দিন’ ২৫ শে ডিসেম্বর খ্রিস্টের জন্মদিন হিসাবে পালন করতেন।

পরে ধীরে ধীরে অধিকাংশ খ্রিস্টানরা এই দিনটাকে মেনে নিলেন খ্রিস্টের জন্মদিন হিসাবে। খ্রিস্টীয় আচারে অয়নকালে সূর্যবন্দনার সঙ্গে ‘স্যাটারনালিয়া’ নামক একটি রোমান উৎসবের মিলন ঘটল। হোমার স্মিথ তাঁর ম্যান অ্যান্ড হিজ গডস-এ লিখেছেন ‘২৫ শে ডিসেম্বরের এই উৎসবের সঙ্গে গ্রিক সৌর উৎসব মিশে গেল, এই উৎসবের মধ্যে দিয়ে অ্যাটিস, ডায়োনিসাস, ওসিরিস প্রমুখ দেবতাকেও সম্মান জানাল, ‘পৃথিবীর আলো’ ও ‘পরিত্রাতা’ নামেও তাঁরা পূজিত হলেন।’ ঠাণ্ডায় জমে যাওয়া ইউরোপের মানুষদের কঠিনতম সময়ের অবসান ঘটে এই সময়, এর থেকেই এই শীতের উৎসবের সূত্রপাত।

খ্রিস্টপূর্ব যুগের এই জনপ্রিয় উৎসবের সঙ্গে তাল মিলিয়ে রোমান চার্চগুলি মেনে নিল ২৫ শে ডিসেম্বর যীশুখ্রিস্টের জন্মদিন। কিন্তু ৩৭৫ খ্রিস্টাব্দ অবধি পূর্ব গোলার্ধের চার্চগুলি তাতে সায় দেয়নি। যদিও এতে খ্রিস্টের মহিমা এতটুকুও ক্ষুণ্ণ হয় না।
এর পাশাপাশি আরও একটি কৌতুহল ভিড় করে আসে যে সান্তা ক্লস কে? কোথা থেকে তাঁর আবির্ভাব। কথায় আছে তিনি ছিলেন চতুর্থ দশকের অত্যন্ত দয়াবান বিশপ। তাঁর আদি নিবাস ছিল তুরস্ক, আর নাম ছিল নিকোলাস। পরে ষোড়শ-সপ্তদশ শতকে যখন নৌবাণিজ্যের প্রসার ঘটে তখন নাবিকরা এই নিকোলাসের গল্প বয়ে নিয়ে গেলেন পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে আর তাঁর নাম হল ফাদার ক্রিসমাস। পরে ওলন্দাজ অভিবাসীরা এই লোককথাকে আমেরিকায় নিয়ে গেলেন যেখানে তাঁর নাম হল সিন্টার ক্লস বা সান্তা ক্লস।

কথিত আছে একবার এক দীনদরিদ্রের বাড়িতে চিমনি বেয়ে উঠে তার ভিতর দিয়ে কয়েকটি স্বর্ণমুদ্রা ফেলে দিয়েছিল নিকোলাস। চিমনির পাশে একপাটি মোজা শুকাতে দেওয়া ছিল। স্বর্ণমুদ্রাগুলো সেই মোজায় গিয়ে পড়ে। এভাবেই প্রচলিত হয় বাচ্চাদের সান্তাক্লসের উপহার দেওয়ার গল্পকথা। ক্রিসমাসের আগের রাত্রে শিশুরা ঘুমিয়ে পড়লে মা-বাবা মোজার ভেতর নানান খেলনা, উপহার রেখে সেই মোজা তাদের মাথার কাছে রেখে দেন। পরের দিন সকালে শিশু ঘুম থেকে উঠে দৌড়ে গিয়ে সেই মোজা খুলে দেখতে যায় সান্তা তার জন্য কী উপহার রেখে গেছে।

Related Videos

Leave a Comment